1. atikurrahman0.ar@gmail.com : MD : MD Atikurrahaman
  2. Mijankhan298@gmail.com : Mijankhan :
  3. mbbrimon@gmail.com : MBB Rimon : MBB Rimon
  4. shamimulislamtanvirrana@gmail.com : MD Tanvir Islam : MD Tanvir Islam
  5. shafiulislamtanzil@gmail.com : Safiul Islam Tanzil : Safiul Islam Tanzil
 
সর্বশেষঃ
এবার নারীদের হিজাব এবং পুরুষের টাকনুর ওপর পোশাক পরে অফিসে আসার নির্দেশ বাবা-মা আমাকে জ’ন্ম দিতে চায়নি,তবুও আমি হয়েচ ! এলোভেরা যেভাবে রাতে মাত্র ৫ মিনিট ব্যবহার করলেই পাবেন ফর্সা, উজ্জল ও দাগমুক্ত ত্বক শ্যাম্পুর সঙ্গে চিনি মেশালে মু’হূর্তেই মিলবে যে আ’শ্চর্য উপকার! ৩৫ হাজার ফুট উঁচুতে মধ্য আকাশে জন্ম নিলো শিশু, আজীবন আকাশ ভ্রমণ ফ্রি ! দাওয়াত ছাড়া বিয়ে খেয়ে আবার উপহার নিয়ে পলায়ন! ভুল করেও এই সব খাবার দ্বিতীয় বার গরম করে খাবেন না হতে পারে বিপদ ! মোরগের হা’তে পুলিশ কর্মকর্তার মৃ’ত্যু! মহানবী (সাঃ) যেভাবে চুল কাটতে নিষেধ করেছেন ! স্বা’মী’কে মা’টি’তে পুঁ’তে রেখে উপ’রে খা’ট বিছি’য়ে ঘুম স্ত্রী’র

চীনে হাজার হাজার মসজিদ ধ্বংস, ১০ লক্ষ মুসলিমকে ‘ধর্মত্যাগ’

  • প্রকাশিত: ০৯:১৫ pm | শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১৫৪ বার পঠিত

বিজয়ের বাংলা:-চীনে হাজার হাজার মসজিদ ধ্বংস, ১০ লক্ষ মুসলিমকে ‘ধর্মত্যাগ’

শিনজিয়াং প্রদেশের হাজার হাজার মসজিদ একেবারে গুঁড়িয়ে বা ক্ষতিগ্রস্থ করে দিয়েছে চীন। সেইসঙ্গে প্রায় ১০

লক্ষ মুসলিমকে জোরপূর্বক তাদের ধর্মীয় আচার পালন ত্যাগ করতে বাধ্য করা হচ্ছে। শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ান

স্ট্র্যাটেজিক পলিসি ইনস্টিটিউটের (এএসপিআই) রিপোর্টে এমনটাই দাবি করা হয়েছে।স্যাটেলাইট থেকে প্রাপ্ত ছবি

বিশ্লেষণ করে এএসপিআই রিপোর্ট বলছে, গত তিন বছরে প্রায় ১৬ হাজার মসজিদ পুরোপুরি ধ্বংস বা ক্ষতিগ্রস্থ

করে দিয়েছে চীন।প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শিনজিয়াংয়ে মসজিদের সংখ্যা ছিল প্রায় ২৪ হাজারের বেশি। এর মধ্যে

৮৫০০ মসজিদ পুরোপুরি ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে। অবশিষ্ট ১৫ হাজারের মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি ক্ষতিগ্রস্থ করে

দেওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, এসব মসজিদ পুরোপুরি ধ্বংস করে না দিলেও মিনার ও গম্বুজ ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে।

চীন সরকার উইঘুর মুসলিমদের এসব ধর্মীয় স্থাপনা সুরক্ষিত রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল।ঐ প্রতিবেদনে আরো বলা

হয়েছে, উইঘুর মুসলিম ও তুর্কিভাষী ১০ লাখের বেশি মুসলিমকে রাখা হয়েছে বন্দিশিবিরে। এসব মুসলিমদের জোর

করে ধর্মীয় কাজকর্ম ও ঐতিহ্য ত্যাগ করতে বাধ্য করা হচ্ছে।রিপোর্টে আরো বলা হয়েছে, উইঘুরদের ধর্মীয় স্থাপনা

গুঁড়িয়ে দিলেও খ্রিস্টানদের গীর্জা এবং বৌদ্ধ মন্দিরের কোনওটিই ক্ষতিগ্রস্থ বা ধ্বংস হয়ে যায়নি।এএসপিআই’র

তাদের প্রতিবেদনে আরো জানিয়েছে, শিনজিয়াংয়ে মুসলিমদের এক তৃতীয়াংশ ধর্মীয়স্থান- মাজার, কবর ও তীর্থের

পথ মুছে দেওয়া হয়েছে। ব্যাংকক পোষ্ট, গার্ডিয়ান, এপি, জি নিউজ

নিউজটি শেয়ারের অনুরোধ রইলো

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯-২০২০ 'বিজয়ের বাংলা'
Developed by  Bijoyerbangla .Com
Translate to English »