1. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  3. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
১৬ বছরেই বিয়ে করতে পারবেন মুসলিম মেয়েরা: পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট -
শিরোনাম:
ব্রেকিং নিউজঃ এবার টি-টোয়েন্টি দলে ফিরলেন তাসকিন-মিরাজ মাত্র পাওয়াঃ সকল কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের জন্য আসলো মন প্রাণ উজার করা সুখবর! এইমাত্র পাওয়াঃ নতুন করে আবারও অনলাইনে ক্লাস নিয়ে নতুন তথ্য প্রকাশ! সকলকে পিছনে ফেলে ভারতের নতুন টেস্ট অধিনায়কের নাম ঘোষণা মাত্রেও পাওয়াঃ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেয়েদের হাতে সিগারেট, এটা কোন শিক্ষা? মাসআল্লাহঃকুরবানির চাঁদ দেখা গেছে, আগামী ১০ জুলাই ঈদুল আজহা! দুনিয়া কাঁপাতে ভারতের বিপক্ষে ইংল্যান্ড দলে অ্যান্ডারসন মাত্র পাওয়াঃ এবার পরীক্ষার খাতায় ‘মাসুদ ভালো হয়ে যাও’ জেনে নিন গত ২৪ ঘ্নটার ভয়াবহ করোনার আপডেট! মাত্র পাওয়াঃ বাংলাদেশের খসে পড়া এক তারকা নাজমুল হোসেন

১৬ বছরেই বিয়ে করতে পারবেন মুসলিম মেয়েরা: পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট

  • আপডেট করা হয়েছে: সোমবার, ২০ জুন, ২০২২
  • ৪৩ বার পঠিত

অন্যান্য দেশের মতো ভারতেও এমনিতে মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৮ বছর। তবে সম্প্রতি মোদি সরকার বিল এনে পুরুষদের মতো মেয়েদের বিয়ের বয়সও ২১ বছর করতে চেয়েছিলেন। তবে

এবার ঘটেছে তার সম্পূর্ণ ব্যাতিক্রম। ১৮ না ২১ নয় বরং মাত্র ১৬ বছর বয়স হলেই মুসলিম মেয়েরা বিয়ে করতে পারবে বলে রায় দিয়েছেন ভারতের পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট।

সম্প্রতি গত ৮ জুন পাঞ্জাবে ২১ বছর বয়সী ছেলে এবং ১৬ বছর বয়সী মেয়ে বিয়ে করে। কিন্তু বিয়ের পরেই তাদের মনে হয়, তাদের জীবনের আশঙ্কা আছে। তারা পাঠানকোটের এসপিকে

বিষয়টি জানান। কিন্তু পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। তখন তারা হাইকোর্টে আবেদন করেন। ওই জুটি হাইকোর্টকে জানায়, তারা বিয়ে করার পর ভয় পাচ্ছে। হাইকোর্টের কাছে তারা পরিবারের

মানুষদের কাছ থেকে জীবনরক্ষার ব্যবস্থা এবং স্বাধীনতার নিশ্চয়তা চায়। আর অবশেষে এই মামলার রায়ে হাইকোর্ট বলেছেন, মুসলিম মেয়েরা ১৬ বছর বয়সে বিয়ে করতে পারবে। বিচারপতি জয়জিৎ সিং বেদির বেঞ্চ এই রায় দেন।

আবেদনকারীদের পক্ষের আইনজীবীর যুক্তি ছিল, মুসলিম আইনে বয়ঃসন্ধিতে পা দেওয়া মানেই বড় হয়ে যাওয়া। তখন ছেলে বা মেয়ে বিয়ে করতে পারেন। তাদের পরিবার বা অবিভাবকরা

কোনোরকম হস্তক্ষেপ করতে পারবেন না।বিচারপতি বেদী বলেছেন, আইনে স্পষ্ট বলা আছে, ‘মুসলিম মেয়েদের বিয়ে হবে মুসলিম পার্সোনাল আইন অনুসারে। প্রিন্সিপাল্স অব মহমেডান

ল’র ১৯৫ নম্বর অনুচ্ছেদ অনুাসারে এই বিয়ে আইনসিদ্ধ। কারণ, মেয়ের বয়স ১৬ বছরের বেশি। তাই তিনি তার জীবনসঙ্গী বেছে নিতে পারবেন। আর ছেলের বয়স ২১ বছর বলে তিনিও বিয়ে করার অধিকারী।’ এই নবদম্পতির নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে বিচারপতি পাঠানকোটের এসপিকে বলেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com