1. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  3. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
১৪৪৮ কোটি টাকা দাম উঠেছে ৪৩ বছর আগে কেনা শেয়ারের! - ২৪ ঘন্টাই খবর
শিরোনাম:
আজকেও হেরে যাবো ভেবেছিলেন: তামিম! মাত্র পাওয়াঃ হু হু করে বাড়েই চলেছে চালের দাম জেনেনিন শেষ আপডেট! ৩০০ করে হারার পর ২৫০ রান মনে হয় ২০০: তামিম অবিশ্বাস্য মনে হলেও সত্য, পথে পাওয়া ২ লাখ টাকা ফিরিয়ে দিলেন দিনমজুর, পরিচয় রাখতে চান গোপন এই মাত্র পাওয়াঃ প্রাইমারির শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও কিন্তু কেন? অবশেষে মাইলফলকের ম্যাচে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা এড়াল টাইগাররা গরম খবরঃ সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষার্থীদের জন্য নতুন নির্দেশনা জারি! শত চেষ্টার পর জয়ের দ্বারপ্রান্তে বাংলাদেশ জিনিসের দাম বাড়ায় কেউ তো মারা যায়নি:পরিকল্পনামন্ত্রী! একশ’র আগেই জিম্বাবুয়ের নয় উইকেট গুড়িয়ে দিলো বাংলাদেশ

১৪৪৮ কোটি টাকা দাম উঠেছে ৪৩ বছর আগে কেনা শেয়ারের!

  • আপডেট করা হয়েছে: বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৩০২ বার পঠিত

বিজয়ের বাংলা: ১৯৭৮ সালে অর্থাৎ এখন থেকে ৪৩ বছর আগে একটি সংস্থার কিছু শেয়ার কিনেছিলেন ভারতের কেরালা রাজ্যের কোচির বাসিন্দা বাবু জর্জ ভালাভি। কিছু বলতে প্রায় সাড়ে তিন হাজার শেয়ার। সেই শেয়ারের মূল্যই এখন দাঁড়িয়েছে প্রায় এক হাজার ৪৪৮ কোটি টাকায়।

৭৪ বছর বয়সি জর্জের দাবি, হিসাব অনুযায়ী ওই সংস্থার ২.৮ শতাংশ অংশীদারিত্ব এখন তার হাতে। একই সঙ্গে জর্জের অভিযোগ, এই বিপুল পরিমাণ টাকা দিতে অস্বীকার করছে ওই সংস্থা।

আনন্দবাজার পত্রিকার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, জর্জের দাবি, ৪৩ বছর আগে তিনি এবং তার চার আত্মীয় মিলে মেবার অয়েল অ্যান্ড জেনারেল মিলস লিমিটেডের সাড়ে তিন হাজার শেয়ার কিনেছিলেন। জর্জ তার পুরনো কাগজপত্র ঘেঁটে দেখার সময় তার বিনিয়োগের বেশ কিছু কাগজ খুঁজে পান। উদয়পুরের ওই সংস্থা থেকে কেনা শেয়ারের নথি নিয়ে খোঁজ নেওয়া শুরু করেন। তখনই জানতে পারেন তিনি যে শেয়ার কিনেছিলেন, তার বর্তমান মূল্য দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৪৪৮ কোটি টাকায়।

প্রতিষ্ঠানটি সেসময় শেয়ার বাজারের নথিভুক্ত ছিল না এবং বর্তমানে এর নাম বদলে হয়েছে পিআই ইন্ডাস্ট্রিজ। এ প্রতিষ্ঠান বর্তমানে দেশটির শেয়ার বাজারের নথিভুক্ত হয়েছে।

২০১৫ সালে জর্জের ছেলে যখন শেয়ারের কাগজপত্র দেখেন তিনি সেই নথি নিয়ে শেয়ারের এক এজেন্টের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। ওই এজেন্ট সংস্থার সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করার পরামর্শ দেন।

জর্জ তখন ওই সংস্থায় গেলে তাদের বলা হয়, ওই শেয়ার ১৯৮৯ সালে অন্যদের কাছে হস্তান্তর করে দেওয়া হয়েছে।

জর্জের অভিযোগ, অবৈধ ভাবে তার শেয়ার অন্যদের বেচে দিয়েছে পিআই ইন্ডাস্ট্রিজ।

বাবু জর্জ ভালাভি বিষয়টি নিয়ে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ বোর্ড অব ইন্ডিয়ার (এসইবিআই) দ্বারস্থ হয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com