1. atikurrahman0.ar@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. Mijankhan298@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  3. msthoney406@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
হৃদয়বিদারক দৃশ্যঃ একইসাথে দুই বন্ধুর মর্মান্তিক মৃত্যু, দাফনও হলো পাশাপাশি! - Online newspaper in Bangladesh
শিরোনাম:
যন্ত্রণাহীন আত্মহত্যা করার যন্ত্রকে বৈধতা দিলো যে দেশ! মুরাদের পদত্যাগপত্র গ্রহণ, যে প্রজ্ঞাপন জারি করলো রাষ্ট্রপতি! ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নিজেকেই শেষ করে দিলেন এইচএসসি পরীক্ষার্থী! ব্রেকিং নিউজঃ র‍্যাবের ৫ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন ইমন! হঠাৎ গভীর রাতে কার সঙ্গে রাগ করে সাধের আইফোন ভাঙলেন পরীমনি? টানা ৫ ঘণ্টা ইমনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে র‍্যাব! ডা. মুরাদ হাসানের বিষয়ে যে সিদ্ধান্ত নিল বিএনপি! brealing: সেই উপস্থাপক নাহিদের খোঁজে ডিবি! প্রথম সৌদি আরবে গিয়েছিলাম পবিত্র হজ্ব করতে,এবার যাচ্ছি গান গাইতে! ব্রেকিং নিউজঃ অবশেষে আবরার ফাহাদ হ’ত্যা মাম’লার রায় চূড়ান্ত!

হৃদয়বিদারক দৃশ্যঃ একইসাথে দুই বন্ধুর মর্মান্তিক মৃত্যু, দাফনও হলো পাশাপাশি!

  • আপডেট করা হয়েছে: মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২১
  • ২৪৭ বার পঠিত

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত দুই বন্ধু সজিব ও মারুফকে পাশাপাশি দাফন করা হয়েছে। সোমবার (২৫ অক্টোবর) রাতে উপজেলার নতিডাঙ্গা দক্ষিণপাড়া কবরস্থানে তাদের দাফন করা হয়।

তারা দুজনই সপ্তগ্রাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র ছিল। উপজেলার বাড়াদি ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. ওবাইদুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রাত পৌনে ৮টার দিকে জানাজার পর মারুফের মরদেহ গ্রাম্য করবস্থানে দাফন করা হয়। পরে রাত ৯টার দিকে মারুফের কবরের পাশেই সজিবের মরদেহ দাফন করা হয়।

এদিন বেলা পৌনে ১১টার দিকে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার হাজরাহাটি পটলা পীরের মাজারের কাছে দুই মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে দুইজন নিহত এবং তিনজন আহত হন। এ সময় হতাহতদের তাৎক্ষণিক পরিচয় না পাওয়া গেলেও

দুপুরে পরিবারের সদস্যরা তাদেরকে শনাক্ত করেন। নিহতরা হলেন- আলমডাঙ্গা উপজেলার বাড়াদি ইউনিয়নের নতিডাঙ্গা গ্রামের দক্ষিণপাড়ার আকুব্বর হোসেনের ছেলে মারুফ হোসেন (২০) একই এলাকার শরিফের ছেলে সজিব (২০)।

জানা গেছে, মারুফ ও সজিব দুই বন্ধু একটি মোটরসাইকেল নিয়ে মোবাইল ফোন মেরামতের জন্য চুয়াডাঙ্গা শহরে যাচ্ছিলেন। এ সময় চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার হাজরাহাটি পটলা পীরের মাজারের নিকট পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা মদন কুমার

দাসের মোটরসাইকেলের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে তিনজনই পাকা রাস্তার ওপর ছিটকে পড়েন। এ সময় সড়কের একদিক থেকে আসা শ্যালো ইঞ্জিনচালিত আলমসাধুর চালক মোটরসাইকেল আরোহীদের পড়ে যেতে দেখে জোরে ব্রেক করেন।

এতে আলমসাধুটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়। এতে আলমসাধুর চালক আজিমউদ্দিন ও যাত্রী শাহিন আহত হন। পরে স্থানীয়রা আহত পাঁচজনকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মারুফকে মৃত ঘোষণা করেন। এর কিছুক্ষণ পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় সজিবের মৃত্যু হয়।

আহত তিনজনকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. উৎপলা বিশ্বাস বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই একজনের মৃত্যু হয়েছে। এর কিছুক্ষণ পর আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া আরও তিনজন আহত হয়েছেন। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন বলেন, হাজরাহাটি পটলা পীরের মাজারের কাছে দুই মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় অপর মোটরসাইকেল ও আলমসাধু চালকসহ এক যাত্রী আহত হয়েছেন। অভিযোগ না থাকায় মরদেহ সুতরহাল শেষে বিকেলে দুই পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2021
Site Developed By Bijoyerbangla.com