1. atikurrahman0.ar@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. Mijankhan298@gmail.com : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  3. rabbimollik2002@gmail.com : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. msthoney406@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. abur9060@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
স্টু‌পি‌ডের মতো কথা বলেন, ভোটকেন্দ্রে ইউএনওকে মেয়র সাদিক - ২৪ ঘন্টাই খবর

স্টু‌পি‌ডের মতো কথা বলেন, ভোটকেন্দ্রে ইউএনওকে মেয়র সাদিক

  • আপডেট করা হয়েছে: সোমবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২২
  • ২২৮ বার পঠিত

জেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রে দায়িত্বরত ইউএনওর সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয়েছে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর। ভোটকেন্দ্রে কয়েকজনকে একসঙ্গে প্রবেশ না করার অনুরোধ করলে ইউএনওর সঙ্গে তর্কে

জড়ান সাদিক আব্দুল্লাহ। ক্ষোভ প্রকাশ করে ইউএনওকে মেয়র সাদিক বলেন, স্টু‌পি‌ডের মতো কথা ব‌লেন। যেভাবে ভাবটা ক‌রেন তা‌তে বুঝা যায় দল বাইধা ঢুক‌তে‌ছি। সোমবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ৯টার দিকে বরিশাল জিলা স্কুল কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহর ফেসবুক লাইভ থেকে বিষয়টি জানা গেছে। সেই ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ বিনা ভোটে সদ্য নির্বাচিত জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট একেএম জাহাঙ্গীর, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান

সাইদুর রহমান রিন্টু, সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র গাজী নঈমুল হোসেন লিটু, অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন, জেলা পরিষদের সদস্য প্রার্থী মোয়াজ্জেম হোসেন চুন্নুসহ কয়েকজনকে নিয়ে কেন্দ্রের দিকে যান।

ওই সময় গেটে ভোট কক্ষের সামনে পৌঁছলে একসঙ্গে একাধিক ভোটারকে নিয়ে প্রবেশ না করতে মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহকে অনুরোধ করেন সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ নুরুল আলম। তখন ইউএনওকে উদ্দেশ্যে করে সাদিক আব্দুল্লাহ

ব‌লেন, ‘আমি কি ঢুক‌ছি এখা‌নে? আমি কি ঢুক‌ছি? কেন সিন ক্রিয়েট কর‌তে‌ছেন? আপ‌নি কে? আমি কি ঢুক‌ছি? তারপরও আপ‌নি কথা বলতে‌ছেন। আমি কি শিশু? স্টু‌পি‌ডের মতো কথা ব‌লেন। যেভাবে ভাবটা ক‌রেন তা‌তে বুঝা যায় দল বাইধা

ঢুক‌তে‌ছি। ভোটার হইছে ১৭৪ জন। তাহ‌লে সমস্যা কোথায় আপনা‌দের?’ তখন কাউন্সিলর শেখ সাই‌য়েদ আহ‌ম্মেদ মান্না পাশ থে‌কে ব‌লেন, ‘এখা‌নে সবাই ভোটার, আপ‌নি চে‌নেন না। আপ‌নে ব‌রিশা‌লে ম‌নে হয় নতুন।’

এ‌ কে এম জাহাঙ্গীর ইউএনওকে ব‌লেন, উনি ব‌রিশাল সি‌টি কর্পো‌রেশ‌নের মেয়র। আমি জেলা প‌রিষ‌দের চেয়ারম্যান এবং উনি উপ‌জেলা প‌রিষদ চেয়ারম্যান। এ সময় ইউএনও ব‌লেন, ‘চেয়ারম্যান ম‌হোদয় আমি আপনা‌দের চি‌নি। আমি এমন কিছু

ব‌লি‌নি।’ মেয়র সা‌দিক ইউএনওকে ব‌লেন, আমি তো ভেত‌রে ঢু‌কি‌নি। আসার পর থে‌কে আপনারা বল‌তে‌ছেন। ফাইজলা‌মি ক‌রেন আপনারা। আপ‌নে কা‌নে কথা শোনেন‌নি। তখন ইউএনও

ম‌নিরুজ্জামান মেয়র‌কে বলেন, আপনা‌কে কিছু ব‌লি‌নি স্যার। প‌রে সদর উপ‌জেলা চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু ও বিনা প্রতিদ্ব‌ন্দ্বিতায় জেলা প‌রিষ‌দের নির্বা‌চিত চেয়ারম্যান এ কে এম জাহাঙ্গীর হোসাইন দুজনকে নিবৃত্ত করেন।

আর এই পুরো ঘটনা সিটি মেয়রের ফেসবুক পেজ থেকে লাইভ করা হয়। লাইভে ভোট কক্ষের ভেতরের চিত্রও দেখা গেছে। যদিও ব‌রিশাল সদর উপ‌জেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ম‌নিরুজ্জামান বাগবিতণ্ডার কথা অস্বীকার করেছেন।

ব‌রিশাল সি‌নিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও জেলা প‌রিষদ নির্বাচ‌নে সহকা‌রী রিটা‌র্নিং কর্মকর্তা নুরুল আলম ব‌লেন, ভোট ক‌ক্ষে ফেসবুক লাইভ করার কো‌নো বিধান নেই। মেয়রের ফেসবুক পেজের লাইভের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি মুঠোফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com