1. atikurrahman0.ar@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. Mijankhan298@gmail.com : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  3. rabbimollik2002@gmail.com : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. msthoney406@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. abur9060@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
সদ্য পাওয়াঃ ১০০ টাকা ভ্যাট আদায়ে এজেন্ট পাবে ৫২ পয়সা - ২৪ ঘন্টাই খবর

সদ্য পাওয়াঃ ১০০ টাকা ভ্যাট আদায়ে এজেন্ট পাবে ৫২ পয়সা

  • আপডেট করা হয়েছে: বৃহস্পতিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৭৯ বার পঠিত

মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট আদায় করতে এজেন্ট নিয়োগ দেবে সরকার। এ জন্য জিনেক্স ইনফোসিস লিমিটেড নামে দেশের বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানকে নিয়োগ করা হয়েছে। বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর)

অর্থনৈতিক সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এই নিয়োগের বিষয়টি অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব আব্দুল বারিক সাংবাদিকদের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। সারাদেশে তিন লাখ

আধুনিক প্রযুক্তির ইলেক্ট্রনিক ফিসক্যাল ডিভাইস বা ইএফডি বসাবে প্রতিষ্ঠানটি। বিনিময়ে সার্ভিস চার্জ হিসেবে কমিশন পাবে। প্রতিষ্ঠানটি স্থানীয় পর্যায়ে ভ্যাট আদায় মেশিন বসানো, সংরক্ষণসহ যাবতীয় কার্যক্রম পরিচালনা

করবে। বিনিময়ে সরকার তাদের নির্ধারিত হারে কমিশন দেবে। রাজধানী ঢাকা ও আশপাশ এলাকা এবং চট্টগ্রামে ভ্যাট মেশিন বসানো হচ্ছে। প্রতি বছর এক লাখ করে তিন বছরে মোট ৩ লাখ মেশিন বসানো হবে। ভ্যাট আদায়ের ভিত্তিতে সরকার গড়ে দশমিক ৫২ টাকা হারে

ওই প্রতিষ্ঠানকে কমিশন দেবে। অর্থাৎ একশ’ টাকা ভ্যাট আদায় করলে প্রতিষ্ঠানটি কমিশন পাবে ৫২ পয়সা। এনবিআর সূত্র বলেছে, নিয়োগকৃত প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে স্থানীয় পর্যায়ে ইএফডির মাধ্যমে ভ্যাট আদায়

কার্যক্রমটি এনবিআর শুধু মনিটরিং করবে। ইলেক্ট্রনিক ফিসক্যাল ডিভাইস আধুনিক প্রযুক্তির হিসাব যন্ত্র। এটি ইসিআরের উন্নত সংস্করণ। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এই যন্ত্র বসানো হলে এনবিআরের কর্মকর্তারা প্রতিদিনের বিক্রির প্রকৃত তথ্য

জানতে পারবেন। ফলে ব্যবসায়ীরা তথ্য গোপন করতে পারবেন না। এতে করে ভ্যাট আদায় অনেকটা বাড়বে বলে প্রত্যাশা করছে সরকার। বর্তমানে মোট রাজস্বের ৩৯ শতাংশই আদায়

হয় ভ্যাট থেকে। ডিপার্টমেন্টাল স্টোর, বিপণি বিতান, হোটেল-রেস্তোরাঁসহ ২৫টি খাতে ইএফডি বসানো বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। দৈনিক গড়ে ১৭ হাজার টাকার বেশি বিক্রি হয় এমন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে

ইএফডি বসানো হবে। ২০২০ সালে পরীক্ষামূলকভাবে ইএফডি পদ্ধতি চালু করে এনবিআর। দুই বছরের মধ্যে বিশ হাজার মেশিন বসানোর কথা থাকলেও করোনার কারণে এর কার্যক্রম ধীরগতিতে চলে। প্রথমে

এনবিআর বিনামূল্যে এই যন্ত্র ব্যবসায়ীদের বিতরণের কথা থাকলেও দরপত্রসহ নানা জটিলতার কারণে আগের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে সরকার। পরবর্তীতে এজেন্ট নিয়োগের মাধ্যমে ভ্যাট আদায়ের

সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, যার বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া শুরু করেছে এনবিআর। জানা যায়, পরীক্ষামূলকভাবে চালু হওয়ার পর থেকে এনবিআর এ পর্যন্ত প্রায় ৮ হাজার ইএফডি বসিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com