1. atikurrahman0.ar@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. Mijankhan298@gmail.com : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  3. rabbimollik2002@gmail.com : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. msthoney406@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. abur9060@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
‘রাজা তৃতীয় চার্লস ’ উপাধি নিয়ে সিংহাসনে বসছেন প্রিন্স চার্লস‌‌ - ২৪ ঘন্টাই খবর

‘রাজা তৃতীয় চার্লস ’ উপাধি নিয়ে সিংহাসনে বসছেন প্রিন্স চার্লস‌‌

  • আপডেট করা হয়েছে: শুক্রবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৮৩ বার পঠিত

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের জীবনাবসানের সঙ্গে সঙ্গে যুক্তরাজ্যের নতুন রাজা হয়েছেন তার বড় ছেলে চার্লস। যিনি এতদিন প্রিন্স অব ওয়েলস বলে পরিচিত ছিলেন। বিবিসি জানায়,

বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর খবর ঘোষণা করার সময়ই রাজ পরিবার থেকে করা টুইটে চার্লসকে রাজা এবং ক্যামিলাকে ‘দ্য কুইন কনসোর্ট’ বলে উল্লেখ করা হয়। মাত্র তিন

বছর বয়সে চার্লস যুবরাজ হয়েছিলেন এবং তিনি ব্রিটিশ সিংহাসনের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে যুবরাজ ছিলেন। বয়সের কারণে রানি এলিজাবেথ দুর্বল হয়ে পড়ায় চার্লস আগে থেকেই বেশকিছু দায়িত্ব পালন

করে আসছিলেন। বিশেষ করে এই বছরে। মায়ের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে দেয়া বার্তায় চার্লস বলেন, ‘‘এটা আমার এবং আমার পরিবারের জন্য সবচেয়ে দুঃখের মুহূর্ত।” রানির মৃত্যুতে সিংহাসনের পরবর্তী উত্তরাধিকারী হিসেবে

চার্লস সরাসরি রাজ হয়ে গেলেও নানা ঐতিহ্যগত অনুষ্ঠান এবং অভিষেক অনুষ্ঠানে রাজমুকুট পরার মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ব্রিটিশ সম্রাজ্যে চার্লাসের শাসনামল শুরু হবে।

রাজা কী নামে পরিচিত হবেন : রাজা হওয়ার পর এখন চার্লসকে প্রথমেই নিজের জন্য একটি নাম বেছে নিতে হবে। তিনি নিজেকে রাজা তৃতীয় চার্লস বলে পরিচিত করতে পারেন বা অন্য কোনো নামও বেছে নিতে পারেন। যেমন তার নানা

রাজা ষষ্ঠ জর্জের আসল নাম ছিল অ্যালবার্ট। কিন্তু রাজা হওয়ার পর তিনি তার নামের মধ্যম অংশ ব্যবহার করা শুরু করেন। চার্লসও তার নামের চারটি অংশ চার্লস ফিলিপ আর্থার জর্জ থেকে যেকোনো একটি বেছে নিতে পারেন।

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ মারা যাওয়ার পর শুধু চালর্স নয় তার বড় ছেলে উইলিয়ামেরও টাইটেল পরিবর্তন হয়ে গেছে। তিনি এখন যুবরাজ। চার্লসের স্ত্রী ক্যামিলা এখন কুইন কনসোর্ট। ব্রিটিশ রাজার স্ত্রী

কনসোর্ট টাইটেল পান। আনুষ্ঠানিক অনুষ্ঠান : মায়ের মৃত্যুর পর প্রথম ২৪ ঘণ্টা বা তার কিছু সময় পর চার্লসকে আনুষ্ঠানিকভাবে রাজা ঘোষণা করা হবে। লন্ডনে সেন্ট জেমসের প্রাসাদে ‘একসেশন কাউন্সিল’ এর সামনে ওই অনুষ্ঠান হবে।

‘প্রিভি কাউন্সি’ এর সদস্যদের নিয়ে ‘একসেশন কাউন্সিল’ গঠন করা হয়। সাবেক এবং বর্তমান জ্যেষ্ঠ এমপি এবং তাদের সহকর্মী, জ্যেষ্ঠ সরকারি কর্মকর্তা, কমনওয়েলথ হাই কমিশনার এবং লন্ডনের মেয়রকে নিয়ে ‘প্রিভি কাউন্সিল’ গঠন করা

হয়। নিয়মানুযায়ী সাতশ’র বেশি মানুষ ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা। কিন্তু স্বল্প সময়ের মধ্যে এত মানুষ আসতে পারেন না বলে প্রকৃত সংখ্যা এর কমই থাকে। ১৯৫২ সালে একসেশন কাউন্সিলে

সর্বনিশ্ন দুইশ মানুষ উপস্থিত ছিলেন। ঐতিহ্যগত ভাবে রাজা এই অনুষ্ঠানে অংশ নেন না। বৈঠকে ‘লর্ড প্রেসিডেন্ট ‍অব দ্য প্রিভি কাউন্সিল’ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর খবর ঘোষণা করবেন এবং নতুন

রাজার নাম উচ্চস্বরে ঘোষণা করা হবে। ঘোষণাপত্রের শব্দ পরিবর্তন হতে পারে। কিন্তু ঐতিহ্যগতভাবে সেটিতে প্রার্থনা এবং একগুচ্ছ অঙ্গীকার করা হবে এবং পূর্ববর্তী রাজার প্রশংসা করে ও নতুন রাজাকে সমর্থনের প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়।

রাজার প্রথম ঘোষণা : সাধারণত পরদিন ‘একসেশন কাউন্সিল’ পুনরায় বৈঠক করবে। রাজা এইদিনের বৈঠকে অংশ নেবেন। প্রিভি কাউন্সিলও থাকবে। ব্রিটিশ রাজা যুক্তরাজ্যের রাষ্ট্রপ্রধান। কিন্তু অন্যান্য দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের

মত তাকে ‘শপথ গ্রহণ’ করতে হয় না। কিন্তু নতুন রাজাকে কিছু ঘোষণা দিতে হয়। তারপর জনসম্মুখে একটি ঘোষণাপত্র পাঠ করা হবে। যেখানে নতুন রাজা হিসেবে চার্লসের নাম ঘোষণা করা হবে। সেন্ট জেমসের প্রাসাদের ফ্রাইরি

কোর্টের উপরের বারান্দা থেকে ওই ঘোষণাপত্র পাঠ করা হবে। ‘গার্টার কিং অফ আর্মস’ নামে পরিচিত একজন কর্মকর্তা তা পাঠ করবেন। তিনি আহ্বান করবেন, ঈশ্বর আমাদের রাজাকে রক্ষা করুন। ১৯৫২ সালের

পর এই প্রথম আবার যুক্তরাজ্যের জাতীয় সংগীতে গাওয়া হবে ‘গড সেভ দ্য কিং’। হাইড পার্ক, টাওয়ার অব লন্ডন এবং নৌবাহিনীর জাহাজ থেকে গান স্যালুট করা হবে এবং চার্লসকে রাজা ঘোষণা করে দেয়া ঘোষণাপত্র এডিনবরা,

কার্ডিফ এবং বেলফাস্টে পাঠ করা হবে। অভিষেক অনুষ্ঠান: চর্লসের ব্রিটিশ সিংহাসনে আরোহণের সবচেয়ে বড় অনুষ্ঠান হলো তার রাজ-অভিষেক। যেখানে আনুষ্ঠানিকভাবে রাজ-মুকুট তার মাথায় উঠবে। তবে যেহেতু অভিষেক

অনুষ্ঠান নিয়ে বিস্তর প্রস্তুতির প্রয়োজন হয়। তাই হয়তো অভিষেক অনুষ্ঠান আয়োজন করতে সময় নেওয়া হবে। ১৯৫২ সালের ফেব্রুয়ারিতে ষষ্ঠ জর্জের মৃত্যুর পরপরই তার মেয়ে এলিজাবেথ রানি হয়েছিলেন। কিন্তু রানি

এলিজাবেথের অভিষেক অনুষ্ঠান হয়েছিল পরের বছর জুনে। গত ৯০০ বছর ধরে ব্রিটিশ রাজা বা রানিদের অভিষেক অনুষ্ঠান হচ্ছে ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবেতে। সেখানে প্রথমবার উইলিয়াম দ্য কনকোরার অভিষেক অনুষ্ঠান হয়। চার্লস হবেন ৪০তম।

কনমনওয়েলথের প্রধান : ব্রিটিশ রাজা হওয়ার পাশাপাশি চার্লস কমনওয়েলথের প্রধানও হবেন। ৫৬টি স্বাধীন রাষ্ট্র এবং ২৪০ কোটি মানুষের সংগঠন কমনওয়েলথ। তারমধ্যে যুক্তরাজ্যসহ ১৫টি দেশের রাষ্ট্রপ্রধান হবেন চার্লস।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com