1. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  3. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন নিয়ে বড় সুখবর - ২৪ ঘন্টাই খবর
শিরোনাম:
এবার সিরাজগঞ্জে ৬০ বছরের বৃদ্ধ ৭ বছরের এক শিশু ধ,র্ষণ চেষ্টায় আটক চাঞ্চল্যকরঃ নতুন করে বাঁচতে শেখার সেই স্বপ্ন ভেঙে চুরমার করল কে? দারুণ লড়াইয়ের পরও উইন্ডিজে দুই টেস্টই ড্র করল বাংলাদেশ ‘এ’ দল রহস্যঃ যেভাবে উদ্ধার হলো আলোচিত শিক্ষিকা খাইরুন নাহারের ম,রদেহ অবিশ্বাস্য মনে হলেও সত্য, ওপেনার ছাড়া এশিয়া কাপের দল! অসাধারণ পার্ফমেন্স করে আসামে যুবাদের হ্যাটট্রিক জয় মাত্র পাওয়াঃ খাইরুন নাহারের আত্মহ,ত্যার পর যে দাবি জানালেন কলেজছাত্র স্বামী যে কারণে এত বিতর্কের পরও সাকিবই বার বার বিসিবির ‘সেরা পছন্দ’! মাত্র পাওয়াঃ সেই শিক্ষিকার লা,শ উদ্ধারের পর কলেজছাত্র মামুন আটক একটু সিনিয়র হলেই জায়গা মেলে বাংলাদেশ দলে!

প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন নিয়ে বড় সুখবর

  • আপডেট করা হয়েছে: সোমবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২১
  • ২১৪ বার পঠিত

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত ২০১০ এবং ২০১২ সালে নিয়োগ পাওয়া সহকারী শিক্ষকদের মধ্যে সৃষ্ট বেতন বৈষম্যে দূরীকরণে করা রিটকারীদের দরখাস্ত নিষ্পত্তি করার আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আগামী ৪৫ দিনের মধ্যে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবকে দরখাস্তটি নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

রোববার (২৪ অক্টোবর) এ সংক্রান্ত রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম এবং বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ্ মিয়া। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার।

রিটে অভিযোগ করা হয়, ২০১০ সালে সরাসরি নিয়োগপ্রাপ্ত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ২০১২ সালের ৩০ জুনের পূর্বে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষকদের অপেক্ষা বেতন কম নির্ধারণ করা হয়। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত ২০১০ এবং ২০১২ সালের সহকারী শিক্ষকদের মধ্যে সৃষ্ট বেতন বৈষম্য দূর করতে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবের সঙ্গে বিভিন্ন সময়ে যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু এরপরও কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।

তাই সংশ্লিষ্টদের নিস্ক্রীয়তা চ্যালেঞ্জ করে সারাদেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২৫ জন সহকারি শিক্ষক হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ সংক্রান্ত রিট পিটিশন দায়ের করেন। রিটে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের সচিব, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ পাঁচ জনকে রিট আবেদনে বিবাদী করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com