1. atikurrahman0.ar@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. Mijankhan298@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  3. msthoney406@gmail.com : Md Rayhan : Md Rayhan
পারিবারিক বলয়ের দিন শেষ হচ্ছে আ.লীগে - Online newspaper in Bangladesh
শিরোনাম:
ধর্ষকদের প্রকাশ্যে শাস্তির দাবি এসপি মাহিরার হৃদয়বিদারক দৃশ্যঃ সন্তানকে ডুবতে দেখে ঝাঁপ দিলেন মা, বাঁচল না কেউই কন্যাসন্তান বলে মুখে বালিশ চাপা দিয়ে মেরে ফেললো মা স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা নিয়ে সুখবর দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো নিয়ে নতুন সির্ধান্ত জানালেন: শিক্ষামন্ত্রী তলিয়ে গেছে বহু আলু-বাদাম ক্ষেত, ডুবেছে পুকুর মাত্র পাওয়াঃ গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষায় নতুন নিয়ম প্রকাশ! আরিয়ানের খাবার পাঠানো নিয়ে জেল কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ শাহরুখের কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম নিজের মেয়ের গলায় ব্লেড ধরে হিংস্র রূপ নেন বাবা,মা এসে দেখেন মেয়ে রক্তাক্ত!

পারিবারিক বলয়ের দিন শেষ হচ্ছে আ.লীগে

  • আপডেট করা হয়েছে: বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৬৬ বার পঠিত

বিজয়ের বাংলা: উত্তরাধিকার সূত্রে সংসদ সদস্য (এমপি) পদে মনোনয়ন পাওয়া কিংবা পদপদবি জুটিয়ে নেওয়ার দিন শেষ হয়ে যাচ্ছে আওয়ামী লীগে। পারিবারিক রাজনীতির বলয় থেকে বেরিয়ে এসে নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে ত্যাগী ও যোগ্য নেতাকর্মীদের মূল্যায়নের দিকে ঝুঁকছে মহান মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্ব দেওয়া দলটি। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও বিষয়টি পরিষ্কার করেছেন ইতোমধ্যে।

১১ সেপ্টেম্বর দলের মনোনয়ন বোর্ডের যৌথ সভায় তিনি বলেছেন, নেতা-মন্ত্রী কিংবা সংসদ সদস্যদের সন্তানরা রাজনীতিতে আসতে চাইলে তারা পরিশ্রম করে আসুক। রাজনীতির মাঠে সময় দিক। তাদের সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ততা কতটুকু, তা দেখে মনোনয়নের ক্ষেত্রে বিবেচনা করা হবে।

শেখ হাসিনার এই নির্দেশনার বাস্তব প্রতিফলন দেখা গেছে মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রেও। ক্ষমতার টানা তৃতীয় মেয়াদের পৌনে তিন বছরে ১৭ জন সংসদ সদস্য হারিয়েছে আওয়ামী লীগ। এর মধ্যে শুধু কিশোরগঞ্জ-১, সিরাজগঞ্জ-১ এবং বগুড়া-১-এই তিনটি আসন ছাড়া বাকি সবকটি উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে পরিবার নয়, দলের ত্যাগী নেতাদেরই বেছে নেওয়া হয়েছে।

সর্বশেষ কুমিল্লা-৭ (চান্দিনা) আসনের উপনির্বাচনে দলের প্রয়াত সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের সাবেক ডেপুটি স্পিকার অধ্যাপক আলী আশরাফের আসনে তার ছেলে মুনতাকিম আশরাফ প্রার্থী হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন। কিন্তু ওই আসনে মনোনয়ন দেওয়া হয় বিশিষ্ট চিকিৎসক ডা. প্রাণ গোপাল দত্তকে। তাকে মনোনয়ন দেওয়ার দিনই শেখ হাসিনা এ বার্তা পৌঁছে দেন দলের শীর্ষ নেতাদের।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ মঙ্গলবার যুগান্তরকে বলেন, যুগের পর যুগ এই উপমহাদেশে একটি রেওয়াজ চালু আছে যে, পিরের ছেলে পির হয়, নেতার ছেলে নেতা হয়। আওয়ামী লীগ এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম। আওয়ামী লীগের মূল শক্তি তৃণমূলের নেতাকর্মী ও জনগণ। মন্ত্রী বা নেতার ছেলে মন্ত্রী কিংবা নেতা হবে, এমপির ছেলে এমপি হবে-এই রেওয়াজে আওয়ামী লীগ বিশ্বাস করে না। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রার্থীর দলের প্রতি, জনগণের প্রতি কমিটমেন্ট, রাজনীতিতে তার অবদান ও গ্রহণযোগ্যতা বিবেচনায় নেয় সবার আগে।

মাহবুবউল আলম হানিফ আরও বলেন, চলতি সংসদে আমরা ১৭ জন সদস্যকে হারিয়েছি। এর মধ্যে তিনজনকে পরিবারের মধ্য থেকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এই তিনজনেরও বর্ণাঢ্য অতীত রাজনৈতিক ইতিহাস আছে। সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ছোট বোন ডা. সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি মেডিকেলে পড়ার সময় ছাত্রলীগ করতেন। ছাত্ররাজনীতি করতেন। মোহাম্মদ নাসিমের ছেলে তানভির সাকিল জয়ও ছাত্ররাজনীতি করতেন। ২০০৮ সালের সংসদ নির্বাচনে এমপিও হয়েছেন। একইভাবে আবদুল মান্নানের স্ত্রী সাহাদার মান্নান থানা আওয়ামী লীগের দীর্ঘদিন সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। এই তিনজনের কেউই উড়ে এসে এমপি হননি। আর বাকি আসনগুলোর উপনির্বাচনে তৃণমূল থেকে উঠে আসা নেতাদের মধ্য থেকেই মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজন সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার যুগান্তরকে বলেন, মন্ত্রীর ছেলে মন্ত্রী হবে, এমপির ছেলে এমপি হবে, নেতার ছেলে নেতা হবে-এটাই আমাদের সমাজে প্রচলিত ধারণা ও বিশ্বাস। মানুষের এই ধারণা ও বিশ্বাস থেকে বেরিয়ে আসতে হলে রাজনৈতিক দলগুলোর উচিত হবে পরিবারের বাইরে থাকা দক্ষ, যোগ্য, শিক্ষিত ও গ্রহণযোগ্য নেতাদের এগিয়ে আসার সুযোগ দেওয়া।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2021
Site Developed By Bijoyerbangla.com