1. atikurrahman0.ar@gmail.com : MD : MD Atikurrahaman
  2. Mijankhan298@gmail.com : Mijankhan :
  3. mbbrimon@gmail.com : MBB Rimon : MBB Rimon
  4. rujina666666@gmail.com : Rujina Akter : Rujina Akter
  5. shamimulislamtanvirrana@gmail.com : MD Tanvir Islam : MD Tanvir Islam
  6. shafiulislamtanzil@gmail.com : Safiul Islam Tanzil : Safiul Islam Tanzil
 
সর্বশেষঃ
ইএফটিতে এবার বেতন পাবেন মাদরাসার শিক্ষকরা ৩০ /৩২টা মেয়েকে থুয়ে সে আমাকে চায়,আর আমি একটা স্বামীকে ছাড়তে পারবো না! মাকে হ’ত‌্যার পর তার লা’শ বস্তায় ভরে পুকুরে ফেলে : ছেলেসহ আটক ২ সঠিক নিয়মে ছাড়াছাড়ি না হলে তামিমার বিয়ে বৈধ নয়: শায়খ আহমাদুল্লাহ এবার অনলাইনে ক্লাস করেই কুরআন হিফজ করলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮৫ জন শিক্ষার্থী Kc ছেলেদের সম্পত্তি লিখে না দেওয়ায় বাবাকে শিকলে বেঁধে রাখে নির্যাতন শহীদ মিনারে পবিত্র কুরআন খতম করলো এবার ইশা ছাত্র আন্দোলন এবার নওমুসলিম নারীকে দিয়ে দেহব্যবসা, কাউন্সিলর রিমান্ডে আগের স্বামীকে তালাক না দিয়েই ৮ বছরের ছোট মেয়েকে রেখে ক্রিকেটার নাসিরকে বিয়ে

দৈনিক কত হাঁটলে কমবে আপনার ওজন,জানেন কি ?

  • প্রকাশিত: ০৬:১৮ pm | শুক্রবার ২৯ জানুয়ারী, ২০২১
  • ২৯৬ বার পঠিত

বিজয়ের বাংলা:
দৈনিক কত হাঁটলে কমবে আপনার ওজন,জানেন কি?শরীর ভালো রাখতে হলে নিয়মিত হাঁটার বিকল্প নেই। নিয়মিত হাঁটা শরীরের অনেক রোগ-বালাই দূর করে, শরীর সতেজ এবং চাঙা রাখে। এছাড়া আপনার ওজনও কমবে। কিন্তু যাঁরা প্রধানত ওজন কমানোর জন্যই হাঁটছেন তাঁদের বেলা? এই সময়

ডিজিটাল ডেস্ক: সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে গাড়িতে বা রিকশায় উঠে অফিসে যাচ্ছেন, অ’ফিসে ডেক্সে বসে কম্পিউটার বা লেখালেখি তারপর অফিস থেকে গাড়িতে উঠে জামের কারণে দুই থেকে তিন ঘণ্টা

গাড়িতে বসে ক্লান্ত হয়ে ঘরে ফিরে ক্ষুধার্ত উদর ভরতি করে খাবার খেয়ে, মোবাইল বা ল্যাপটপে কি’ছুক্ষণ ফেসবুকিং করে বিছানায় ঘুমাতে যাওয়া। দৈনন্দিন শারীরিক কার্যক্রম হচ্ছে না বললেই চলে। যার ফলে

শরীরে বাসা বাঁধছে বিভিন্ন অসুখ বিসুখ যেমন- ডায়বেটিস, উচ্চরক্তচাপ, আথ্র্রাইটিস, ওবেসিটি বা স্থুলতা, মাংসপেশির শ’ক্তি কমে যাওয়া, অষ্ঠিওপোরোসিস বা হাড়ের ভঙ্গুরতা ইত্যাদি। এই থেকে মুক্তি পেতে পারেন হাঁটলে। ওজন

কমানো ছাড়াও নিয়মিত হাঁটার অন্য অনেক স্বাস্থ্যগত উপকারিতা আছে। নিয়মিত হেঁটেই নিজেকে সুস্থ রাখতে পারেন আপনি। শরীর ভালো রাখতে হলে নি’য়মিত হাঁটার বিকল্প নেই। নিয়মিত হাঁটা শরীরের অনেক রোগ-বালাই দূর করে, শ’রীর সতেজ ও চাঙা

রাখে। এছাড়া আপনার ওজনও কমবে। কিন্তু যাঁরা প্রধানত ওজন কমানোর জন্যই হাঁটছেন তাঁ’দের বেলা? কোন বিষয়গুলোতে সচেতন থাকলে হেঁটে ওজন কমানো সম্ভব তা জেনে নেওয়া জরুরি। বিশেষজ্ঞরা

বলছেন, রোজ ১০,০০০ স্টেপ হাঁটলে তবেই কমবে ওজন। সত্যিই কি ১০,০০০ স্টেপ হাঁটলে ওজন কমে? জেনে নিন… কত ক্যালরি ওজন ক’মেআধুনিক যুগে প্রযুক্তির সাহায্যে কত ক্যালরি বার্ন করা যায় তা দেখা গিয়েছে। সেখানে দেখা গিয়েছে, যখন কোনও ব্যক্তি ১০০০ স্টেপ হাঁটেন, তখন

তিনি ৩০ থেকে ৪০ ক্যালোরি বার্ন করেন। তাহলে ভেবে দেখুন যদি রোজ ১০,০০০ স্টেপ হাঁটা যায় তাহলে কতটা ক্যালরি বার্ন হবে। হিসেব করে দেখা গিয়েছে তাতে ৩০০ থেকে ৪০০ ক্যালোরি বা’র্ন সহজেই করা যায়। তবে, প্রযুক্তির সাহায্যে হেঁটে ক্যালরি বার্ন করার থেকে এমনি হাঁটা খুবই ভালো।

কত দ্রুত হাঁটবেনহিসাবটা সোজা, আপনি যত দ্রুতগতিতে হাঁ’টবেন প্রতি মিনিটে আপনার তত বেশি ক্যালরি পুড়বে। আলসেমি করে হাঁটলে প্রতি মিনিটে হয়তো ৩ ক্যালরির মতো পুড়বে। আর একটু বেশি গতিতে হাঁ’টলেই এর প্রায় দ্বিগুণ ক্যালরি খরচ হবে। আর আপনি যদি দৌড়ানো বা

জগিং করা শুরু করেন, তাহলে ক্যালরি পোড়ানো দ্রুত হাঁটার চেয়েও দ্বিগুণ বাড়বে। আর হাঁটা বাদ দিয়ে পুরোপুরি দৌড়াতে শুরু করলে ক্যালরি পোড়ানোর হার আরও বাড়তে থাকবে। ১০ হাজার স্টেপে কতটা ক্যালরি পো’ড়াবেন১০ হাজার ধাপে কত ক্যালোরি পোড়া যায় তা দেখার একটি উপায় রয়েছে। এই পদ্ধতিকে বলা হয়

(MET) বলা হয়। আপনি বসতে বা দাঁড়ানোর জন্য যে পরিমাণ শক্তি ব্যবহার করেন তাকে ওয়ান মেট বলে। আপনি যখন এক ঘন্টার মধ্যে কোনও সাধারণ তিন মাইল ক’ভার করেন, এতে ৩.৫ মেট শক্তি লাগে। এগুলি ছাড়াও,আপনি যখন একই দূরত্বে আরোহণ করেন তখন এটি ৬ MET

অবধি ব্যবহার করে। হাঁটার গতি কেমন হবেহাঁটার সময় অনেকে বুঝতে পারেন না যে, হাঁটার গতি কেমন হবে। তবে হাঁটার জন্য তেমন নি’র্দিষ্ট কোনো গতি নেই। প্রথমে ধীরে ধীরে হাঁটা শুরু করার পর আস্তে আস্তে গতি বাড়াতে হবে। শরীরের সঙ্গে তাল মিলিয়ে য’তটুকু পারা যায় গতি

বাড়াতে হবে। অনেকে ঘুম থেকে উঠেই হাঁটতে শুরু করেন। এটি মোটেই ঠিক নয়। ঘুম থেকে ওঠার কমপক্ষে ৩০ মিনিট পর হাঁটতে বের হওয়া উচিত। কারও যদি সকালে অফিসে যাও’য়ার তাড়া থাকে তাহলে ঘুম থেকে একটু আগে ওঠার অভ্যাস

করুন। হাঁটার সঙ্গে ব্যায়ামওআমাদের শরীর খুব অল্প দিনেই আমাদের অভ্যাসগুলোর সঙ্গে মানিয়ে নেয়। ফ’লে হাঁটাহাঁটির অভ্যাসটা আয়ত্ত হয়ে গেলে শরীরও এতে মানিয়ে নেয়। কিন্তু এটা আপনার জন্য ভালো না! কারণ হাঁটার একটা নির্দিষ্ট ধরন দাঁড়িয়ে গেলে দিন দিন একই দূরত্বে হেঁটেও আপনার ক্যালরি পোড়ানো কমে যেতে

থাকবে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে কিছুদিন পর পর শরীরকে নতুন কিছু ব্যায়াম করতে শুরু করুন। প্রথমে কিছুদিন হাঁটার সঙ্গে এক’টু করে দৌড়ান বা একটু করে যোগব্যায়াম করুন। এগুলোতে একঘেয়ে হয়ে গেলে কিছুদিন হাঁটার

পাশাপাশি ভারোত্তোলন করুন বা একটু টেনিস বা ব্যা’ডমিন্টন খেলুন। এভাবে আপনার ওজন যেমন কমবে, তেমনি হাঁটাহাঁটিতেও একঘেয়েমি আসবে না।

নিউজটি শেয়ারের অনুরোধ রইলো

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯-২০২১ 'বিজয়ের বাংলা'
Developed by  Bijoyerbangla .Com
Translate to English »