1. atikurrahman0.ar@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. Mijankhan298@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  3. msthoney406@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
দেখুন ব্রয়লার মুরগির কেজি ২০০ টাকা কেন? - Online newspaper in Bangladesh

দেখুন ব্রয়লার মুরগির কেজি ২০০ টাকা কেন?

  • আপডেট করা হয়েছে: শনিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২১
  • ১৬০ বার পঠিত

বিজয়ের বাংলা: ক’দিন আগেও ছিল ১১০-১২০ টাকা। এখন একলাফে ২০০ ছুঁই ছুঁই। ব্রয়লার মুরগির দাম হঠাৎ কেজিতে ৮০-৯০ টাকা বাড়লো। মুরগির খাবার তৈরির অন্যতম কাঁচামাল সয়ামিল রফতানিও বন্ধ করেছে সরকার। এ মৌসুমে এমনিতেও মুরগির দাম পড়ে যাওয়ার কথা।

তারপরও কেন বেড়েছে দাম? ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেলো, দাম বাড়ার কারণ একটাই—করোনার ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া। এতদিন বিয়ে, অনুষ্ঠান বন্ধ থাকায় মুরগির চাহিদা কম ছিল। এখন একযোগে বেড়েছে চাহিদা। এ কারণেই দাম বাড়ানো হয়েছে।

একই চিত্র গোটা বাজারজুড়ে। পর্যাপ্ত উৎপাদন এবং টনে টনে পচে গেলেও দেড় মাস আগের ৪০ টাকা কেজির পেঁয়াজ এখন ৭০ টাকা। ৬০ টাকার চিনি কিনতে হচ্ছে ৮০ টাকায়। সবজি থেকে শুরু করে চাল, ডাল, তেলের বাজারও ঊর্ধ্বমুখী। নতুন করে বেড়েছে আটা ময়দাসহ অন্তত ডজনখানেক নিত্যপণ্যের দাম।

সরকারি বিপণন সংস্থা টিসিবির তথ্য বলছে, এই সপ্তাহে বেড়েছে আটা, ময়দা, মসুর ডাল, রসুন, হলুদ, আদা, দারুচিনি ও লবঙ্গের দাম। স্বস্তি নেই সবজির বাজারেও। বেশিরভাগই ৭০ টাকার ওপরে। প্রতিকেজি কাঁচা মরিচ কিনতে হচ্ছে ১৫০-২০০ টাকায়। মোটা চালের দাম এখনও ৫০ টাকা কেজি। নাজিরশাইল ৬৫-৭০, মিনিকেট ৬০-৬৫ ও আটাশ চাল ৫৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

গত সপ্তাহের তুলনায় রাজধানীর বাজারগুলোতে কেজিতে ব্রয়লার মুরগির দাম বেড়েছে ১০ টাকা পর্যন্ত। শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, ব্রয়লার বিক্রি হচ্ছে ১৯০ টাকায়। গত সপ্তাহে ছিল ১৭৫ থেকে ১৮০ টাকা। দুই সপ্তাহ আগে ছিল ১৬৫ টাকা। সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে ছিল ১২০-১৩০ টাকা।

রাজধানীর মানিকনগর এলাকার বাসিন্দা গোলাম কিবরিয়া কামাল বলেন, ‘১০০ টাকা কেজির ব্রয়লার ২০০ হয়ে গেলো। এ নিয়ে কারও মাথাব্যথা নেই। স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য সবজি দিয়েও ভাত খাওয়া কষ্টকর। সব সবজির কেজিই ৭০ টাকার বেশি।’

ব্যবসায়ীরা বলছেন, ব্রয়লারের মতো পাকিস্তানি কক বা সোনালি মুরগির দামও দফায় দফায় বেড়েছে। সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে ২১০ থেকে ২৩০ টাকা থাকলেও এখন ৩৩০-৩৫০ টাকা হয়েছে। এক সপ্তাহ আগেও প্রায় একই দাম ছিল। দুই সপ্তাহ আগে ছিল ৩০০ টাকা।

মুরগির দাম নিয়ে মুগদা বাজারের ব্যবসায়ী রতন আলী বলেন, অন্য সময় শীতের আগে ব্রয়লার মুরগির দাম কম থাকে। এবার ব্যতিক্রম। বাজারে মুরগির সরবরাহও কম।

মালিবাগ বাজারের ব্যবসায়ী আজমল হোসেন বলেন, রেস্তোরাঁগুলোতে ব্রয়লার যাচ্ছে বেশি। বিভিন্ন অনুষ্ঠানও বেড়েছে। এসবের জন্য বেশি মুরগি লাগছে।

অন্যদিকে, ডিম গত সপ্তাহে ৩৮-৪০ টাকা হালি বিক্রি হলেও এখন তা নেমেছে ৩৬ টাকায়।

রসুনের কেজি ১৩০-১৪০ টাকা। আগের সপ্তাহে ছিল ১২৫ টাকা। গোল আলুর দাম ২০ টাকাই আছে বেশিরভাগ জায়গায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2021
Site Developed By Bijoyerbangla.com