1. atikurrahman0.ar@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. Mijankhan298@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  3. rabbimollik2002@gmail.com : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. msthoney406@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. abur9060@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
দুঃখের বিষয়: মানুষ খাইতে পারে না, অথচ জেলায় জেলায় এলইডি স্থাপন হয়! - ২৪ ঘন্টাই নিউজ
শিরোনাম:
বিশ্ব এখন নতুন স্নায়ুযুদ্ধের হুমকির মুখে জানালেন জাতিসংঘ মহাসচিব যে কোনো সময় এবং যে কারণে গ্রেপ্তার হতে পারেন ইমরান খান ১৪ বছরের আইপিএল ইতিহাসে এই রেকর্ডটি শুধুই বাংলার বাঘ মুস্তাফিজের, নেই আর কারও রাজধানীতে আবারও স্বস্তির পরশ বুলিয়ে এক পশলা বৃষ্টি এবার টেস্টের ও ওয়ানডে খেলতে বাংলাদেশ সফরে আসছে ভারত! দেখেনিন খেলার সময় সূচি জেনে নিন তালের শাঁসের উপকারিতা দারুন সুখবরঃ অনশেষে বাবর-কোহলিকে টপকে বিশ্বের ১ নাম্বার ব্যাটসম্যান হলেন বাংলাদেশের এই বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান মাত্র পাওয়াঃ ফর্মে থাকতেই সে বিদায় নেবেন : মুশফিকুর রহিমের বাবা হৃদয়বিদারকঃ যমুনার ভাঙনে পানির সাথে বিলীন কয়েকশ ঘরবাড়ি এলিমিনেটর ম্যাচে লড়বে লখনউ বনাম ব্যাঙ্গালোর, জেনে নিন দুই দলের মহাশক্তিশালী একাদশ!

দুঃখের বিষয়: মানুষ খাইতে পারে না, অথচ জেলায় জেলায় এলইডি স্থাপন হয়!

  • আপডেট করা হয়েছে: শনিবার, ১৪ মে, ২০২২
  • ৮৩ বার পঠিত

ডাকসুর সাবেক ভিপি এবং গণ-অ’ধিকার প’রিষদের সদস্যসচিব নুরুল হক নুর বলেছেন, দেশের সব জিনিসপত্রের দাম বাড়ছে। মানুষ যেখানে খেতে পারে না সেখানে সরকার উন্নয়নের প্রচার করার জন্য জেলায় জেলায় এলইডি বোর্ড স্থাপন করছে। গত ১৩

বছরে সরকার দেশকে মুমূর্ষু অবস্থায় নিয়ে গেছে মন্তব্য করে ও ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেছেন, দেশ এখন আইসিইউতে রয়েছে। মানুষ অনেক কষ্টে আছে। শুক্রবার (১৩ মে) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ভোজ্য তেল ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ

সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। জনগণকে উদ্দেশ করে নুর বলেন, সংসদের ৬২ শতাংশ এমপি ব্যবসায়ী। তারা ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের সঙ্গে তারা জড়িত। আমরা দেখেছি এই সরকার এত দিন ক্ষমতায় থাকার পরও গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে পারেনি। সরকারের এমপি-মন্ত্রীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, সময় থাকতে ভালো

হয়ে যান। সরকার যদি নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম না কমায় তাহলে আমাদের পরবর্তী কর্মসূচি সচিবালয় ঘেরাও। বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক মুনতাজুল ইসলামের উপস্থাপনায় আরো বক্তব্য দেন গণ-অধিকার পরিষদ যুগ্ম

আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খান, ফারুক হাসন, মাহফুজুর রহমান, সোহরাব হাসান, সাদ্দাম হোসেন, হানিফ খান সজিব, যুগ্ম সদস্যসচিব আতাউল্লাহ, সাইফুল্লাহ হায়দার, মশিউর রহমান, শ্রমিক অধিকার পরিষদের সভাপতি আব্দুর রহমান, ছাত্র-অধিকার পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক মোল্যা রহমতুল্লাহ, গণ-অধিকার পরিষদ ও বাংলাদেশ যুব অধিকার কেন্দ্রীয় নেতারা। সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন তিনশতাধিক নেতাকর্মী।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com