1. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  3. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
তামিমাকে হাসিমুখেই ঘরে নিতে চান রাকিব - ২৪ ঘন্টাই খবর
শিরোনাম:
অবিশ্বাস্যঃ আধা কিলোমিটার দীর্ঘ কাগজে কোরআন লিখলেন জামিল মাত্র পাওয়াঃ সাকিব-মুশফিকের সঙ্গে ওপেনিংয়ের ভাবনায় শেখ মেহেদীও মাত্র পাওয়াঃ মাথার ঘাম পায়ে ফেলে ভ্যান চালিয়ে চীনে দুই ছেলেকে ইঞ্জিনিয়ারিং পড়াচ্ছেন বাবা সাকিবও আমার কিছু না, রিয়াদও আমার কিছু না, যে কারণে বললেন সুজন এইমাত্র পাওয়াঃ ডাচ-বাংলা গ্রাহকদের জন্য আসলো চরম দুঃসংবাদ! মাত্র পাওয়াঃ চকবাজারে আগুন: এক কক্ষ থেকে ৬ ম,রদেহ উদ্ধার মাত্র পাওয়াঃ এক নজরে দেখেনিন বাংলাদেশ ভারত ও পাকিস্তানের এশিয়া কাপের জন্য শক্তিশালী একাদশ ২০১৬ এশিয়া কাপের পর মাথার ঘাম পায়ে ফেলে আবারো নতুন করে ব্যাট হাতে ঝড় তুলতে চান সাব্বির এশিয়া কাপের ট্রফি জিততে এক অদ্ভুত পন্থা অবলম্বন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ টাইগাররা,জানলে টাশকি খেয়ে যাবেন এইমাত্র পাওয়াঃ সপ্তাহে মাত্র ৫ দিন ক্লাস জানালেন শিক্ষামন্ত্রী! বিস্তারিত……

তামিমাকে হাসিমুখেই ঘরে নিতে চান রাকিব

  • আপডেট করা হয়েছে: বৃহস্পতিবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৪৫২ বার পঠিত

বিজয়ের বাংলা: রাকিব হাসানকে ডিভোর্স না দিয়েই তামিমা নাসির হোসেনকে বিয়ে করেন। এই অভিযোগে আদালতে মামলা দায়ের করেন রাকিব। মামলায় ক্রিকেটার নাসির হোসেন, তামিমা সুলতানা তাম্মি ও তাম্মির মা সুমি আক্তারের বিরুদ্ধে সমন জারি করেছেন আদালত। তবে এই পরিস্থিতিতে তামিমাকে হাসিমুখে ঘরে তুলে নিতে চান আইনত স্বামী রাকিব হোসেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালত থেকে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন রাকিব হোসেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সে এখনো আমার স্ত্রী, এটা আইনই বলে দিয়েছে।’

রাকিব হোসেন বলেন, ‘তামিমা আমার স্ত্রী, তাকে হাসিমুখেই ঘরে নেব, বরিশাল নিয়ে যাব। আমার মেয়েকে দেখাশোনা করবে।’

নাসির-তামিমাকে ৩১ অক্টোবর আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে। যদি না আসেন তাদের গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হবে। রাকিব এখন তাকিয়ে আছেন আদালতের পরবর্তীও নির্দেশের দিকে।

এর আগে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জসীমের আদালতে সৌদিয়া এয়ারলাইন্সের বিমানবালা তামিমা সুলতানা তাম্মী ও তামিমার মা সুমি আক্তারকে দোষী উল্লেখ করে প্রতিবেদন জমা দেয় পিবিআই।

তালাক বৈধ না হওয়ায় সৌদিয়া এয়ারলাইন্সের কেবিন ক্রু তামিমা সুলতানা তাম্মী এখনও ব্যবসায়ী রাকিব হাসানের স্ত্রী।

তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে— তালাক যথাযথ হয়নি জেনেও নাসির বিয়ে করেছেন তামিমাকে। তামিমা রাকিবকে তালাক দেননি। আইনগতভাবে রাকিব তালাকের কোনো নোটিশও পাননি। তামিমা উল্টো জালিয়াতি করে ডাকবিভাগের তালাকের নোটিশ তৈরি করে তা বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন। যথাযথ প্রক্রিয়ায় তালাক না দেওয়ার ফলে তামিমা তাম্মী এখনও রাকিবের স্ত্রী হিসেবে বহাল রয়েছেন।

দেশের ধর্মীয় বিধিবিধান ও আইন অনুযায়ী এক স্বামীকে তালাক না দিয়ে অন্য কাউকে বিয়ে করা অবৈধ এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এমন পরিস্থিতিতে ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তামিমা তাম্মীর বিয়ে অবৈধ বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এর আগে তালাকনামা ছাড়াই অন্যের স্ত্রীকে বিয়ে করার অভিযোগে ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তার স্ত্রী তামিমা সুলতানার বিরুদ্ধে করা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ৩০ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেছিলেন আদালত। গত ৩১ আগস্ট ঢাকা মহানগর হাকিম মোহাম্মদ জসীমের আদালতে মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ধার্য ছিল। এদিন মামলার তদন্ত সংস্থা পিবিআই প্রতিবেদন দাখিল করেনি। এ জন্য বিচারক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ৩০ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেন।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি তামিমার প্রথম স্বামী মো. রাকিব হাসান বাদী হয়ে এ মামলা করেন। ওই দিনই আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করেন। এর পর শুনানি শেষে বিকালে আদালত মামলার অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে পিবিআইকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০১১ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি তামিমা ও রাকিবের বিয়ে হয়। তাদের আট বছরের একটি মেয়েও রয়েছে। তামিমা পেশায় একজন কেবিন ক্রু। চলতি বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি তামিমা ও ক্রিকেটার নাসির হোসেনের বিয়ের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তা রাকিবের নজরে আসে। পরে পত্রপত্রিকায় তিনি ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারেন।

এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়, রাকিবের সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্ক থাকাবস্থায় তামিমা নাসিরকে বিয়ে করেছেন, যা ধর্মীয় ও রাষ্ট্রীয় আইন অনুযায়ী সম্পূর্ণ অবৈধ। নাসির তামিমাকে প্রলুব্ধ করে নিজের কাছে নিয়ে গেছেন বলে অভিযোগ করা হয়।

‘তামিমা ও নাসিরের এমন অনৈতিক ও অবৈধ সম্পর্কের কারণে রাকিব ও তার আট বছর বয়সি শিশুকন্যা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়েছে। আসামিদের এ ধরনের কার্যকলাপে রাকিবের চরমভাবে মানহানি হয়েছে, যা তার জন্য অপূরণীয় ক্ষতি। এমতাবস্থায় ন্যায়বিচারের স্বার্থে আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪৯৪/৪৯৭/৪৯৮/৫০০ ও ৩৪ ধারায় অপরাধের অভিযোগ আমলে নিয়ে প্রয়োজনীয় আদেশ দানে আদালতের মর্জি হয়।’

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com