1. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  3. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
আট গোলের সুপার কাপে শেষ হাসি বায়ার্নের - ২৪ ঘন্টাই খবর
শিরোনাম:
ডমিঙ্গোর ভবিষ্যত জানা যাবে যেদিন ‘বাজ’ হয়ে উড়া ইংল্যান্ডকে মাটিতে আছড়ে ফেললো প্রোটিয়ারা এবাদতের ঝড় বলে আউট হওয়ার পর ফর্ম হারিয়ে সেঞ্চুরি বিহীন ১০০০ দিন! ‘পাকিস্তানের কাছে নাকানিচুবানি খাওয়ার পর বদলে গেছে ভারত’ মাত্র পাওয়াঃ এটিই দুর্দশার শেষ মাস, আগামী মাস থেকে উন্নয়নঃ পরিকল্পনামন্ত্রী পারফর্মের জড় উঠিয়ে ১১০ বছরের রেকর্ড ভেঙে অ্যান্ডারসনের ইতিহাস গরম খবরঃ বাড়াবাড়ি কইরেন না, মা বইলা গো কওয়ার সুযোগ পাবেন না: শামীম ওসমান শক্তির দাপট দেখিয়ে এশিয়া কাপে নতুন অস্ত্র নিয়ে রশিদ খান মাত্র পাওয়াঃ আমি মোমেনকে ভালোবাসি: আসিফ নজরুল ভয়ঙ্কর ‘কালাপানি গ্যাংস্টার’, নাম সুনলেই আতংক অস্ত্র হাতে মহড়া!

আট গোলের সুপার কাপে শেষ হাসি বায়ার্নের

  • আপডেট করা হয়েছে: রবিবার, ৩১ জুলাই, ২০২২
  • ৯৮ বার পঠিত

রবার্ট লেভানডফস্কি চলে যাওয়ার পর বায়ার্ন মিউনিখের আক্রমণভাগের সক্ষমতা নিয়ে সন্দেহে ভুগছিলেন অনেকে। সাদিও মানে এসে কত দ্রুত মানিয়ে নিতে পারবেন সেটাও

দেখার বিষয়। লাইপজিগে রেড বুল অ্যারেনায় কাল রাতে দুটি প্রশ্নের উত্তর বায়ার্ন মিউনিখই মিলিয়ে দিল। লেভানডফস্কি চলে যাওয়ার পরও ক্ষুরধার আক্রমণভাগ এবং মানের সপ্রতিভ অভিষেক দেখে খুশিই

হবেন জার্মানির ক্লাবটির সমর্থকেরা। জার্মান সুপার কাপে কাল লাইপজিগকে ৫-৩ গোলে বিধ্বস্ত করেছে বায়ার্ন। আট গোলের এই ম্যাচ জন্ম দিয়েছে রেকর্ডের। প্রতিযোগিতাটির ইতিহাসে কোনো ম্যাচে এটাই

সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড। এর আগে ১৯৮৯ সালের ম্যাচে সাত গোলের জন্ম দিয়েছিল বরুসিয়া ডর্টমুন্ড এবং বায়ার্ন। ইউলিয়ান নাগলসমানের দল কাল রাতে রোমাঞ্চ ছড়িয়ে রেকর্ডটি নতুন করে লিখিয়েছে। প্রথমার্ধেই ৩-০ গোলে

এগিয়ে যায় বায়ার্ন। ১৪, ৩১ ও ৪৫ মিনিটে গোল করেন যথাক্রমে জামাল মুসায়ালা, সাদিও মানে ও বেনজামিন পাভার্দ। সেনেগালিজ তারকা মানের এ ম্যাচ দিয়ে অভিষেক ঘটল বায়ার্নের জার্সিতে। মানে ও পাভার্দকে

গোল দুটি বানিয়ে দেন মুসায়ালা ও সার্জ নাব্রি। ২০১০-১১ সালে জার্মান সুপার কাপ নতুন করে শুরুর পর প্রথম দল হিসেবে প্রথমার্ধেই তিন গোলের নজির গড়ে বিরতিতে যায় বায়ার্ন। লুকাস হার্নান্দেজ, দায়োত উপামেকানো ও আলফানসো

ডেভিসদের নিয়ে সাজানো নাগালসমানের রক্ষণও প্রথমার্ধে দারুণ খেলেছে। এই অর্ধে বায়ার্নের গোলপোস্ট তাক করে মাত্র একটি শট নিতে পেরেছে লাইপজিগ। কিন্তু বিরতির পর পরিস্থিতি

পাল্টে যায়। ৫৬ মিনিটে লাইপজিগের আন্দ্রে সিলভার হেড বুন্দেসলিগা চ্যাম্পিয়নদের গোলপোস্টে লেগে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। এর তিন মিনিট পর লাইপজিগের গোলের

খাতা খোলেন মার্সেল হলস্টেনবার্গ। ৬৫ মিনিটে নাব্রির গোলে আবারও তিন গোলের ব্যবধান ধরে রাখে বায়ার্ন (১-৪)। লাইপজিগ এরপরও ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছে। ৭৭ মিনিটে ক্রিস্টোফার এনকুকু ও ৮৯ মিনিটে দানি ওলমো

গোল করে ব্যবধান কমান (৩-৪)। যোগ করা সময়ের ৮ মিনিটে ম্যাচের শেষ কিকে গোল করেন বদলি হয়ে নামা বায়ার্ন তারকা লেরয় সানে। মৌসুমের প্রথম শিরোপা জয় নিশ্চিত করে মাঠ

ছাড়ে বায়ার্ন। জার্মান সুপার কাপ এ নিয়ে ১০ম বারের মতো জিতল বায়ার্ন। জার্মানির আর কোনো দলই এত বেশিবার সুপার কাপ জিততে পারেনি। এ নিয়ে শেষ তিনবারই সুপার কাপ

ঘরে তুলল বায়ার্ন। এর আগে টানা তিনবার জার্মান সুপার কাপ জয়ের নজিরও শুধু বায়ার্নই গড়েছে (২০১৬ থেকে ২০১৮)। ৫ আগস্ট থেকে শুরু হবে বুন্দেসলিগার নতুন মৌসুম।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com