1. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  3. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
অবিশ্বাস্যঃ মুশফিক-সাকিবকে ছাড়াই সিরিজ জিততে ‘ক্ষুধার্ত’ ছিল দল - ২৪ ঘন্টাই খবর
শিরোনাম:
মাত্র পাওয়াঃ অবশেষে‘সাকিব তার ভুল বুঝতে পেরেছে’ নিজের যোগ্যতা দেখিয়ে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টির জায়গা ছিনিয়ে নিলেন এবাদত এইমাত্র পাওয়াঃ পরীক্ষা হলে জালিয়াতি, মিলল ৬টি জাতীয় পরিচয়পত্র চোটের কারণে এশিয়া কাপের দলে অনেকে বাদ পরলেও যে কারণে বাদ পড়লেন না সোহান মাত্র পাওয়াঃ সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত, জলোচ্ছ্বাসের পূর্বাভাস সকলকে ভেলকি দেখিয়ে এশিয়া কাপ দলে স্পেশালিস্ট হয়ে ফিরলেন সাব্বির সদ্য পাওয়াঃ প্রাইভেটকার খাদে পড়ে প্রাণ গেল স্বামী-স্ত্রীর মাত্র পাওয়াঃ অবশেষে‘দেশের মানুষ বেহেশতে আছে’ মন্তব্যের ব্যাখ্যা দিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীর্ঘ ৩ বছর পর সাব্বিরের জাতীয় দলে ফেরা নিয়ে যা বললেন প্রধান নির্বাচক ব্রেকিং নিউজঃ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিয়ে জেলা-উপজেলা কর্মকর্তাদের নতুন নির্দেশনা!

অবিশ্বাস্যঃ মুশফিক-সাকিবকে ছাড়াই সিরিজ জিততে ‘ক্ষুধার্ত’ ছিল দল

  • আপডেট করা হয়েছে: বৃহস্পতিবার, ১৪ জুলাই, ২০২২
  • ৪৪ বার পঠিত

বাংলাদেশ ক্রিকেটে দুই মহীরূহ নেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চলতি সিরিজে। দলে তাই প্রশান্তির ছায়া কতটা পড়বে, সংশয়ের অবকাশ ছিল যথেষ্টই। তবে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে

পর্যদুস্ত দল ওয়ানডে সিরিজে ঠিকই ঘুরে দাঁড়িয়ে প্রথম দুই ম্যাচেই জিতে নিয়েছে সিরিজ। মুশফিক এবার গোটা সফর থেকেই ছুটি নেন হজে যাওয়ার কারণে। সাকিব দুই

সংস্করণে থাকলেও ওয়ানডে থেকে ছুটি নেন পরিবারকে সময় দেওয়ার জন্য। ২০০৬ সালে সাকিবের অভিষেকের পর প্রথমবার এই দুজন একসঙ্গে নেই বাংলাদেশের একাদশে।

তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পাত্তাই না দিয়ে বাংলাদেশ সিরিজ জয় নিশ্চিত করে ফেলেছে অভিজ্ঞ দুজনকে ছাড়াই। দুই ম্যাচেই জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছেন বোলাররা। ব্যাটিংয়ে লক্ষ্য ছিল

ছোট। তাই মুশফিকের অভাব সেভাবে বোধ করার কারণ এমনিতে ছিল না। তবে এরকম স্পিন সহায়ক উইকেটে সাকিব থাকলে নিশ্চিতভাবেই বাংলাদেশের বোলিং আরও ধারাল হতো, দুর্দশা বাড়ত ক্যারিবিয়ানদের।

তবে যা হয়েছে, তামিম খুশি তাতেই। শুধু সাকিব-মুশফিকের মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটারই শুধু নয়, ইয়াসির আলি চৌধুরির মতো সম্ভাবনাময় একজনকে পাওয়া যাচ্ছে না চোটের কারণে। তার পরও দল জয়ের জন্য মরিয়া ছিল, ম্যাচ শেষে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বললেন তামিম।

“সেরা একাদশের তিনজন ক্রিকেটার অনুপস্থিত থাকলে একটু তো আত্মবিশ্বাস ওপর-নিচে হয়। তবে ছেলেরা ওই জিনিসটি বুঝতেই দেয়নি। সবাই জয়ের জন্য ক্ষুধার্ত ছিল।”

“আগেও বলেছি, টেস্ট ও ্‌টি-টোয়েন্টি সিরিজে সবাই চেষ্টা করেছে। কিন্তু যখন ফল পক্ষে আসেনি, ওয়ানডেতে সবাই জিততে চেয়েছিল। ঠিক করেছিলাম যে

অন্তত কিছু একটা নিয়ে যেতে হবে। এটা আমার ব্যাপার নয়, ব্যাপারটি অন্য ১৫ জনের। ওদের ভূমিকাটা ছিল গুরুত্বপূর্ণ। ওদের ইচ্ছের কারণেই এই ফল।”

ওয়ানডে ক্রিকেট বরাবরই বাংলাদেশের স্বস্তির সংস্করণ। এখানে বাংলাদেশের ধারাবাহিকতাও অনেক বেশি। একটা আত্মবিশ্বাসের জায়গা তাই ছিলই। সঙ্গে জয়ের তীব্র

তাড়না ছিল বলে জানালেন অধিনায়ক। “সিরিজ শুরুর আগে বলেছিলাম, এই একটা সংস্করণে আমরা গর্ব খুঁজে নেই এবং খুব ভালো খেলি। আমরা টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি

সিরিজ হেরেছি, ড্রেসিং রুম খুব সুখী ছিল না। তবে সবাইকে জাগিয়ে দিতে হয়েছে এবং সবাই জিততে মরিয়া ছিল। এটাই গুরুত্বপূর্ণ, সবাই জিততে চাইছিল।”

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com