1. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  3. [email protected] : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. [email protected] : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
অবিশ্বাস্যঃ বিয়ে করতে কনে এলেন বরের বাড়ি, আলোচনায় দম্পতি! - ২৪ ঘন্টাই খবর
শিরোনাম:
মাত্র পাওয়াঃ অবশেষে‘সাকিব তার ভুল বুঝতে পেরেছে’ নিজের যোগ্যতা দেখিয়ে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টির জায়গা ছিনিয়ে নিলেন এবাদত এইমাত্র পাওয়াঃ পরীক্ষা হলে জালিয়াতি, মিলল ৬টি জাতীয় পরিচয়পত্র চোটের কারণে এশিয়া কাপের দলে অনেকে বাদ পরলেও যে কারণে বাদ পড়লেন না সোহান মাত্র পাওয়াঃ সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত, জলোচ্ছ্বাসের পূর্বাভাস সকলকে ভেলকি দেখিয়ে এশিয়া কাপ দলে স্পেশালিস্ট হয়ে ফিরলেন সাব্বির সদ্য পাওয়াঃ প্রাইভেটকার খাদে পড়ে প্রাণ গেল স্বামী-স্ত্রীর মাত্র পাওয়াঃ অবশেষে‘দেশের মানুষ বেহেশতে আছে’ মন্তব্যের ব্যাখ্যা দিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীর্ঘ ৩ বছর পর সাব্বিরের জাতীয় দলে ফেরা নিয়ে যা বললেন প্রধান নির্বাচক ব্রেকিং নিউজঃ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিয়ে জেলা-উপজেলা কর্মকর্তাদের নতুন নির্দেশনা!

অবিশ্বাস্যঃ বিয়ে করতে কনে এলেন বরের বাড়ি, আলোচনায় দম্পতি!

  • আপডেট করা হয়েছে: বুধবার, ১৩ জুলাই, ২০২২
  • ৫২ বার পঠিত

বাংলাদেশে বিয়ের যে প্রচলিত প্রথা সেটা ভেঙ্গে আলোচনার জন্ম দিয়েছে ঝিনাইদ‌হের শৈলকৃপা উপ‌জেলার সদ্য বিবাহিত এক দম্পতি। বুধবার (১৩ জুলাই) এই বিয়ে অনু‌ষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশের

চিরাচরিত নিয়মানুযায়ী ্‌বর তার আত্মীয়-স্বজনসহ অন্যান্য সহযাত্রীদের নিয়ে কনের বাড়ী যান বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে এবং সেখান থেকে কনেকে নিজের বাড়ীতে নিয়ে

আসেন। কিন্তু ঝিনাইদ‌হের শৈলকুপা উপজেলা প‌রিষ‌দের আব‌াসিক এলাকার ইউএনও”র গাড়ী চালক আব্দুল কা‌দে‌রের মেয়ে ই‌তি সে‌লিনা এক্ষেত্রে উল্টো কাজটি করেছেন। তিনি তার

সহযাত্রীদের নিয়ে ্‌একই উপ‌জেলার ম‌নোহরপুর গ্রামের সামসু‌দ্দিন লস্ক‌রের পুত্র দীপ্ত টি‌ভির সাংবা‌দিক এম এ মা‌লেক শান্তর বাড়িতে হাজির হন বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে।

প্রথাগতভাবে বিয়ের অনুষ্ঠানস্থলের প্রবেশমুখে যেভাবে বরকে বরণ করা হয়, তেমনি এই বিয়েতেও কনেকে ফুলের মালা পরিয়ে, মিষ্টি খাইয়ে বরণ করে নেন

বরপক্ষের আত্মীয় স্বজন। এরপর বর কনে আসনে বসে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন। সব অতিথিদের আপ্যায়ন করা‌নো হয় এবং ক‌নে থে‌কে যান ছে‌লের বাড়ী‌তে।

ব্যতিক্রমধর্মী এই বিয়ের অনুষ্ঠানকে ঘিরে স্থানীয়দের মধ্যে উৎসাহের কমতি ছিলনা। বিয়ের অনুষ্ঠান দেখতে বরের বাড়ীতে যেমন উৎসাহী জনতা ভিড় ছিল তেমনি কনের বাসাতেও

অনেক মানুষ জড়ো হন। এই প্রথার বাইরের বিয়ের প্রস্তাবটি আসে মূলত বর শান্তর পক্ষ থে‌কে। তারা চেয়েছেন এই বিয়ের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নারী পুরুষের বৈষম্য দূর করার একটা দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে।

এ ব্যাপারে কনে ্‌সে‌লিনা ব‌লেন “ছেলেরা যদি পারে মেয়েদেরকে বিয়ে করে নিয়ে আসতে তাহলে মেয়েরা কেন পারবেনা। নতুন সিস্টেমে বিয়ে করতে পেরে আমি অনেক খুশি। প্রথমে ভেবেছিলাম এভাবে

বিয়ে করবো, ঠিক হবে কিনা। কিন্তু পরে আমি রাজী হই। এমন আনকমনভাবে বিয়ে এর আগে আর কেউ করেনি। বিয়েতে এজন্য অনেক আনন্দ হয়েছে। “শুরুতে দুই পরিবারের আত্মীয়-স্বজন এবং

পাড়া-প্রতিবেশী আপত্তি জানালেও ্‌পরে তারা রাজী হন এবং সাদরেই এই প্রস্তাবকে গ্রহণ করেন। “পুরুষ শাসিত সমাজে নারী পুরুষের সমান অধিকারের বহিঃপ্রকাশে এই প্রথা ভেঙ্গে বিয়ে করার বিষয়টিকে প্রতীকী বলে জানিয়েছেন বর এম এ মা‌লেক শান্ত।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com