1. atikurrahman0.ar@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. Mijankhan298@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  3. rabbimollik2002@gmail.com : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. msthoney406@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. abur9060@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
অনৈতিক সম্পর্ক: স্ত্রী এবং সন্তান রেখে ১০র্ম শ্রেণির ছাত্রীকে নিয়ে পালাতক শিক্ষক! - ২৪ ঘন্টাই নিউজ
শিরোনাম:
জেনে নিন তালের শাঁসের উপকারিতা দারুন সুখবরঃ অনশেষে বাবর-কোহলিকে টপকে বিশ্বের ১ নাম্বার ব্যাটসম্যান হলেন বাংলাদেশের এই বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান মাত্র পাওয়াঃ ফর্মে থাকতেই সে বিদায় নেবেন : মুশফিকুর রহিমের বাবা হৃদয়বিদারকঃ যমুনার ভাঙনে পানির সাথে বিলীন কয়েকশ ঘরবাড়ি এলিমিনেটর ম্যাচে লড়বে লখনউ বনাম ব্যাঙ্গালোর, জেনে নিন দুই দলের মহাশক্তিশালী একাদশ! ব্রেকিং নিউজঃ আরো যে ৩ দেশে মাঙ্কিপক্স শনাক্ত গত ২ বছরের এমন টানা সাফল্যের রহস্য খোলাসার ইস্যুতে লিটনের উত্তরে অবাক হয়ে গেলেন সবাই মাত্র পাওয়াঃ ২ ফুট ৫ ইঞ্চি উচ্চতা নিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে খাটো তরুণ হিসাবে স্বীকৃতি পেলেন ! গরম খবরঃ নিজের প্রেমিকাকে ডেকে এনে তুলে দিলো বন্ধুদের হাতে এই সমালোচনা তোয়াক্কা না করে মুশফিককে নিয়ে বড় আফসোস করে তার কাছে ১টি অনুরোধ করলেন তার বাবা

অনৈতিক সম্পর্ক: স্ত্রী এবং সন্তান রেখে ১০র্ম শ্রেণির ছাত্রীকে নিয়ে পালাতক শিক্ষক!

  • আপডেট করা হয়েছে: শুক্রবার, ১৩ মে, ২০২২
  • ১২৬ বার পঠিত

নিজের স্ত্রী এবং দুই সন্তানকে রেখে নিজ স্কুলের দশম শ্রেণির একটি ছাত্রীর সঙ্গে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বি’রুদ্ধে। অভিযুক্ত শিক্ষক ওই ছাত্রীকে প্রাইভেট পড়াতেন। অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম হাসমত হোসেন। তিনি পাবনার বেড়া উপজেলার নতুনভারেঙ্গা

ইউনিয়নের বাটিয়াখড়া গ্রামের মৃত আব্দুল লতিফের ছেলে। হাসমত ঐতিহ্যবাহী ভারেঙ্গা একাডেমির সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ভারেঙ্গা একাডেমির সহকারী শিক্ষক হাসমত হোসেনের কাছে নিজ বাড়িতে প্রাইভেট পড়তো একই

প্রতিষ্ঠানের ১০ম শ্রেণির ওই ছাত্রী। প্রা’ইভেট পড়ানোর সুযোগে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সোমবার (৯ মে) ওই ছাত্রী যথারীতি স্কুলে যায়। তবে স্কুল ছুটির পর সে আর বাড়ি ফিরে আসেনি। তার অভিভাবকরা দুদিন ধরে খোঁজাখুঁজি করেন। পরে ওই ছাত্রীর

সহপাঠীদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অভিভাবকরা গৃহশিক্ষক হাসমত হোসেনের কাছে ফোন করেন। তিনি ওই কিশোরীকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার কথা স্বীকার করেন এবং তাকে বিয়ে করেছেন বলে জানান। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষকের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা

করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়। ভারেঙ্গা একাডেমির প্রধান শিক্ষক মাহফুজার রহমান বলেন, ‘প্রায় এক যুগ ধরে হাসমত এই স্কুলে শিক্ষকতা করছেন। আগে কখনো এমন আচরণ তার মধ্যে লক্ষ্য করিনি। তিনি

এমন ন্যাক্কারজনক কাজ করেছেন যে, আমরাও সামাজিকভাবে লজ্জার মধ্যে পড়েছি।’ এ ব্যাপারে বেড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অরবিন্দ সরকার বলেন, আমাদের কাছেও অভিযোগ এসেছে। ওই ছাত্রীকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com