1. atikurrahman0.ar@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  2. Mijankhan298@gmail.com : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  3. rabbimollik2002@gmail.com : Bijoyerbangla News : Bijoyerbangla News
  4. msthoney406@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
  5. abur9060@gmail.com : বিজয়ের বাংলা : বিজয়ের বাংলা
অধ্যক্ষের কক্ষে ৬ ঘণ্টা আটকে রেখে ইডেন ছাত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগ - ২৪ ঘন্টাই খবর

অধ্যক্ষের কক্ষে ৬ ঘণ্টা আটকে রেখে ইডেন ছাত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগ

  • আপডেট করা হয়েছে: মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর, ২০২২
  • ২৮৩ বার পঠিত

রাজধানীর ইডেন মহিলা কলেজে ছাত্রী নির্যাতন ও অন্যান্য বিষয়ে গণমাধ্যমে বক্তব্য দেওয়ায় নুসরাত জাহান কেয়া নামে এক ছাত্রীকে অধ্যক্ষের কক্ষে ৬ ঘণ্টা আটকে রেখে হয়রানি, মানসিক নির্যাতন ও জোর করে অঙ্গীকারনামা নেওয়ার অভিযোগ

উঠেছে। সোমবার (১৭ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে ইডেন কলেজ ক্যম্পাসে এ ঘটনা ঘটে। টানা ৬ ঘণ্টা আটকে রাখার পর ওই নারী শিক্ষার্থীকে সন্ধ্যার পর তার এক চাচাতো ভাইয়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী মার্কেটিং বিভাগে মাস্টার্সে অধ্যয়নরত ও ছাত্র অধিকার পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি।

কেয়া অভিযোগ করে বলেন, সোমবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে সার্টিফিকেট নিতে ক্যাম্পাসে গেলে শিক্ষকরা তাকে অধ্যক্ষের কক্ষে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে দুপুর ১টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত টানা ৬ ঘণ্টা ধরে

আটকে রেখে হয়রানি ও মানসিক নির্যাতন করা হয়। তিনি বলেন, অধ্যক্ষের রুমে প্রায় ৩৫ জন শিক্ষক আমাকে হেনস্তা করেছেন। একপর্যায়ে হুমকি দিয়ে জোর করে লিখিত নেন। পরে আমি অসুস্থ হয়ে পড়ি।

কেয়া আরও অভিযোগ করেন, আমার কাছে জোরপূর্বক মুচলেকা আদায় করা হয়৷ আমি যে বক্তব্য দিয়েছি তার কারণ লিখিত আকারে দিতে বলা হয়। আমার বাড়িতে ফোন দিয়ে বাবা-মাকে এসে

আমাকে নিয়ে যেতে বলে। বাবা-মা গ্রামে থাকায় তারা আসতে পারেননি। পরে ঢাকায় আমার এক চাচাতো ভাই থাকেন, তিনি এসে লিখিত দিয়ে আমাকে কলেজ থেকে নিয়ে যান। আমি এখনো অসুস্থ।

গণমাধ্যমের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কথা বলতে কলেজের অধ্যক্ষ ড. সুপ্রিয়া ভট্টাচার্যকে ফোন করা হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি। উল্লেখ্য, গত ২৬ সেপ্টেম্বর ইডেন কলেজে ছাত্রলীগের

দুই পক্ষের অন্তর্কোন্দলের ঘটনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে ছাত্র অধিকার পরিষদের বিক্ষোভ কর্মসূচিতে নুসরাত জাহান কেয়া বক্তব্য দেন। বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি নিজেই

অভিযোগ করেছিলেন, তিনি টাকা দিয়ে হলে উঠেছিলেন। কিন্তু ভয়াবহ নির্যাতনের কারণে দুই দিনের বেশি হলে থাকতে পারেননি। এছাড়া শিক্ষার্থীদের অনৈতিক কাজে বাধ্য করার অভিযোগ নিয়েও তিনি সেদিন বক্তব্য দিয়েছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন
© All rights reserved 2022
Site Developed By Bijoyerbangla.com